HS Exam: উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার নম্বর জমা দেওয়ার নতুন পদ্ধতি, কী কী সুবিধা পাবেন?

শেয়ার করুন HS Exam: ২০২৪ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার মূল্যায়নের নম্বর জমা দেওয়ার পদ্ধতিতে এবার বড়সড় পরিবর্তন আনল পশ্চিমবঙ্গ উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ। এবার থেকে ...

HS Exam
শেষ আপডেট:

HS Exam: ২০২৪ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার মূল্যায়নের নম্বর জমা দেওয়ার পদ্ধতিতে এবার বড়সড় পরিবর্তন আনল পশ্চিমবঙ্গ উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ। এবার থেকে অনলাইনেই জমা দেওয়া যাবে নম্বর। এই পদ্ধতি চালু হওয়ার ফলে সময় ও ভুলত্রুটি কমবে বলে মনে করছে সংসদ।

পুরনো পদ্ধতিতে, পরীক্ষক-শিক্ষকরা মার্কস ফয়েলের হার্ড কপিতে পরীক্ষার্থীদের প্রাপ্ত নম্বর লিখে তাতে থাকা ওএমআর শিটে নম্বর চিহ্নিত করে প্রধান পরীক্ষকদের কাছে জমা দিতেন। প্রধান পরীক্ষকরা তা যাচাই করে জমা দিতেন সংসদের আঞ্চলিক অফিসে। সেখান থেকে তা পাঠানো হত সংসদের অফিসে। সেখান থেকে নম্বর সার্ভারে আপলোড করা হত।

নতুন পদ্ধতিতে কী আনা হয়েছে (HS Exam Paper Rule)?

নতুন পদ্ধতিতে, পরীক্ষকরা বাড়িতে বসেই অনলাইনে নম্বর জমা দিতে পারবেন। এজন্য তাদের সংসদের ওয়েবসাইটে গিয়ে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে। অ্যাকাউন্ট তৈরির পর, তারা তাদের অধীনে থাকা কত উত্তরপত্র বরাদ্দ রয়েছে তা দেখতে পাবেন। সেখানেই নম্বর ফয়েলের ডিজিটাল ভার্সন থাকবে। পরীক্ষার্থীদের নাম ও রোল নম্বর পর্যন্ত সেখানে বসানো থাকবে। শুধু সেখানে পরীক্ষার্থীদের প্রাপ্তনম্বর লিখতে হবে প্রধান পরীক্ষককে। কোনও ভুল তথ্য দিলে তা এডিট করার সুযোগ থাকবে।

আরও পড়ুন:

আরো পড়ুন: কত নাম্বারে উচ্চমাধ্যমিকে পাস! জানুন নাম্বার ও গ্রেডসমূহ

সকলের কী কী সুবিধা হচ্ছে?

এই পদ্ধতি চালু হওয়ার ফলে অনেক সুবিধা হবে। প্রথমত, সময় কম লাগবে। দ্বিতীয়ত, ভুল ত্রুটি কম হবে। তৃতীয়ত, নম্বর জমা দেওয়ার প্রক্রিয়া আরও সহজ হবে।

শিক্ষক সংগঠনগুলি এই পদ্ধতিকে স্বাগত জানালেও এর কার্যকারিতা নিয়ে কিছুটা সংশয় প্রকাশ করেছে। তাদের মতে, এই পদ্ধতি বাস্তবায়নের আগে পর্যাপ্ত প্রশিক্ষণ দেওয়া উচিত। তাছাড়া, ইন্টারনেট সংযোগের সমস্যা থাকলে সমস্যা হতে পারে।

উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা (HS Exam) শুরু হচ্ছে ফেব্রুয়ারির ১৬ তারিখ ও শেষ হচ্ছে ২৭ তারিখ। নম্বর জমা দেওয়ার সময়সীমা হল ৩১ মার্চ।

  আমাদের হোয়াটস্যাপ চ্যানেল

High Secondary Exam, HS Exam